ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করার উপায় – গুরুত্বপূর্ন ট্রিকস

ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করার উপায় সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানি না। কিন্তু আপনি যদি একজন ভিডিও ক্রিয়েটর হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য রয়েছে দ্বিগুণ আয় করার একটি দুর্দান্ত সুযোগ। আপনি ফেসবুকে ইউটিউবের ভিডিও আপলোড করে যেমন অর্থ উপার্জন করতে পারেন। ঠিক তেমনি শুধুমাত্র ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করেও টাকা আয় করতে পারেন। তাহলে আসুন আজ আমরা কীভাবে ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করা যার তার নানান  উপায় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিই। 

সূচিপত্রঃ

ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করার উপায়

বন্ধুরা, এটা সত্য যে ফেসবুক অনেক ইউটিউবারদের জন্য একটি দুর্দান্ত প্ল্যাটফর্ম দিয়েছে যারা ইউটিউব থেকে আয় করতে সক্ষম নয়! ইউটিউবের তুলনায়, ফেসবুকে ভিউও বেশি হয়, তাই আমরা চাইলেই সহজেই ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে ফেসবুক থেকে ভালো একটি অর্থ আয় করতে পারি। 

ফেসবুক ভিডিও থেকে বিভিন্ন উপায়ে আপনি আয় করতে পারেন। যার মধ্য রয়েছেঃ

  • ফেসবুক ওয়াচ
  • সাবস্ক্রিপশন চালিয়ে
  • ইন-স্ট্রীম বিজ্ঞাপন
  • ফেসবুক রিলস
  • কোম্পানির স্পন্সর করে
  • ভিডিওতে লোগো দিয়ে
  • পণ্য বিক্রয়ের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে
  • অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে
  • অফার মার্চেন্ডাইজ দ্বারা
  • কোর্স বিক্রি করে
  • স্টিকারের মাধ্যমে

আরো পড়ুনঃ

ফেসবুক ওয়াচ থেকে আয় করার উপায়

আসলে ফেসবুক ওয়াচ হল ফেসবুকের একটি ভিডিও শেয়ারিং ফিচার যার মাধ্যমে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা ফেসবুকে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে সারা বিশ্বের নির্মাতাদের ভিডিও দেখতে পারেন।

শুধু তাই নয়, তারা ভিডিও আপলোড করতে পারে এবং তাদের মূল বিষয়বস্তু থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারে। এই বৈশিষ্ট্যটি প্রাথমিকভাবে আমেরিকায় চালু করা হয়েছিল এবং বর্তমানে আমাদের দেশে ফেসবুকে ভিডিওর মাধ্যমে ভাল অর্থ উপার্জন করতে এটি ব্যবহার করছেন।

সাবস্ক্রিপশনের মাধ্যমে আয় করার উপায়

Facebook একটি ফ্যান সাবস্ক্রিপশন বৈশিষ্ট্য অফার করে যা ভক্তদের মাসিক ফি প্রদান করে তাদের প্রিয় নির্মাতাদের সমর্থন করতে দেয়। বিনিময়ে, অনুরাগীরা এক্সক্লুসিভ কন্টেন্ট এবং অন্যান্য বিশেষ সুবিধা পান। আপনি গ্রাহকদের আকৃষ্ট করতে আপনার ফেসবুক রিল, ভিডিও এবং অন্যান্য সামাজিক মিডিয়া চ্যানেলগুলিতে আপনার ফ্যান সাবস্ক্রিপশন পরিষেবা প্রচার করতে পারেন। 

যখন আপনার ভিডিও দেখে দর্শকরা উপকৃত হবেন, তখন তারা আপনার পেইজের নিচে থাকা Subscribe নামের একটি অপশন পাবে। তখন তারা আপনাকে উৎসাহিত করার জন্য আপনার পেইজকে সাবস্ক্রাইব করবে এবং আপনার সদস্যতা নিবে। এভাবে করার কারণে তাদের থেকে একটি অর্থ আপনার এ্যাকাউন্টে জমা হবে।

ইন-স্ট্রীম বিজ্ঞাপন থেকে আয় করার উপায়

ফেসবুকে যখন ভিডিও চলে, তখন ভিডিওর শুরুর সময় কিংবা মাঝে বা শেষে বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন ফেসবুক তার ব্যবহারকারীদের দেখায় যাকে ইন-স্ট্রীম বিজ্ঞাপন বলে। যখন ব্যবহারকারীরা এইসব বিজ্ঞাপন দেখে তখন ঐ ভিডিও নির্মাতা সেখান থেকে একটি অর্থ পায়। আর এভাবেই ফেসবুক ভিডিও আপলোড করে যে কেউ চাইলেই তার ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ইনকাম করতে পারে। 

ফেসবুক রিলস থেকে আয় করার উপায়

ফেসবুকে আপনি চাইলেই রিলস থেকে ভালো একটি আয় করতে পারেন। Facebook Reels থেকে অর্থ উপার্জনের অনেক উপায় রয়েছে, যার মধ্যে আপনি Facebook Reels থেকে এফিলিয়েট মার্কেটিং, Refer And Earn, Sponsorship, Product Selling, URL Shortener এবং যেকোন পরিষেবা বিক্রি করে রিলগুলিকে মনিটাইজেশন করে Facebook Reels থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

কোম্পানির স্পন্সর করে আয় করার উপায়

স্পন্সরশিপের মাধ্যমে Facebook থেকে টাকা আয় করা যায়। আপনি যদি Facebook-এ খুব জনপ্রিয় হন এবং Facebook-এ আপনার প্রচুর ফ্যান ফলোয়ার থাকে, তাহলে আপনি স্পন্সরশিপের মাধ্যমে Facebook থেকেও প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারেন৷ স্পন্সরশিপের মাধ্যমে Facebook থেকে অর্থ উপার্জন করতে হলে আপনার Facebook প্রোফাইলে ১০ হাজারের বেশি ফলোয়ার থাকা উচিত৷

যখন আপনি আপনার ফেসবুক পেজে এত বেশি ফলোয়ার পাবেন, তখন বড় কোম্পানি আপনার সাথে যোগাযোগ করবে স্পন্সরশিপের জন্য। স্পন্সরশিপে আপনাকে আপনার ফেসবুক প্রোফাইলে কোম্পানি বা তার পণ্য সম্পর্কে একটি পোস্ট দিতে হবে, যার বিনিময়ে এই কোম্পানি আপনাকে অর্থ প্রদান করবে। 

প্রথম উপায় হল যখন আপনি Facebook-এ আরও বেশি ফলোয়ার পাবেন, কোম্পানি নিজেই আপনার সাথে যোগাযোগ করবে স্পনসরশিপের জন্য। কিন্তু যদি আপনার Facebook প্রোফাইলে বেশি ফলোয়ার থাকা সত্ত্বেও কোন কোম্পানি আপনার সাথে স্পনসরশিপের জন্য যোগাযোগ না করে। 

তখন এই পরিস্থিতিতে, আপনি নিজেই স্পন্সরশিপ পেতে একটি কোম্পানিকে একটি ইমেল পাঠাতে পারেন। যে ইমেইলের মাধ্যমে আপনি আপনার যোগ্যতা তুলে ধরে আপনার যাবতীয় প্রোফাইল তাদের কাছে পাঠাবেন। আর যখন তারা সবকিছু যাচাই বাছাই করে আপনার পেইজ বা প্রোফাইল পছন্দ করবে তখন তারা তাদের প্রোডাক্টের একটা রিভিউ বা যেকোনো বিজ্ঞাপন আপনার পেইজ বা প্রোফাইলে দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করবে। আর এভাবেই বিভিন্ন কোম্পানির স্পন্সর করে আপনি টাকা আয় করতে পারেন।

ভিডিওতে লোগো দিয়ে আয় করার উপায়

আপনি যখন কোনো ভিডিও বা রিলস আপলোড করবেন, তখন ঐ ভিডিওতে বিভিন্ন কোম্পানির লোগো দেখিয়েও আপনি টাকা আয় করতে পারেন। এইসব লোগো দ্বারা দর্শকরা বিভিন্ন কোম্পানির পণ্য বা সেবা সম্পর্কে অবগত হয়। আর এভাবেই আপনি অন্যের লোগো প্রচার করে ইনকাম করতে পারেন। 

পণ্য বিক্রয়ের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আয় করার উপায়

আপনার যদি এমন কোনো পণ্য বা পরিষেবা থাকে যা আপনি প্রচার করতে চান, আপনি এটি প্রদর্শন করতে Facebook রিল কিংবা ভিডিওর মাধ্যমে করতে পারেন। আপনি এমন ভিডিও তৈরি করতে পারেন যা আপনার পণ্য বা পরিষেবার বৈশিষ্ট্য এবং সুবিধাগুলি প্রদর্শন করে এবং দর্শকদের ক্রয় করার জন্য একটি কল টু অ্যাকশন প্রদান করে৷ আর এভাবেই আপনি ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করতে পারেন। 

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার উপায়

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল অন্য লোকের পণ্যের প্রচারের মাধ্যমে কমিশন উপার্জন করার একটি উপায়। আপনি পণ্যের প্রচার ভিডিও তৈরি করতে এবং বিবরণে একটি লিঙ্ক অন্তর্ভুক্ত করতে Facebook রিলস কিংবা পেইজের ভিডিও গুলোতে ব্যবহার করতে পারেন। যখন কেউ লিঙ্কে ক্লিক করে এবং কেনাকাটা করে, তখন আপনি সেই কেনাকাটা থেকে একটি কমিশন পাবেন। 

অফার মার্চেন্ডাইজ দ্বারা আয় করার উপায়

আপনার যদি একটি ব্র্যান্ড বা অনুসরণকারী থাকে, তাহলে আপনি টি-শার্ট, মগ বা ফোন কেসের মতো পণ্যদ্রব্য অফার করতে পারেন। আপনি আপনার পণ্য প্রদর্শন করতে এবং আপনার অনলাইন স্টোরের একটি লিঙ্ক প্রদান করতে Facebook রিল বা পেইজের ভিডিও ব্যবহার করতে পারেন।

কোর্স বিক্রি করে আয় করার উপায়

আপনি যদি কোনো বিষয়ে পারদর্শী হন, তাহলে আপনার যোগ্যতা এবং অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে আপনি নানান ধরনের জ্ঞান এবং শিক্ষামূলক বিষয়ের কোর্স বিক্রি করতে ফেসবুক ভিডিও ব্যবহার করতে পারেন। আপনি আপনার ভিডিও গুলোতে আপনি যে কোর্স গুলো দর্শকদের বা শিক্ষার্থীদের করাতে চান, তা স্পষ্ট এবং বিস্তারিত উল্লেখ করুন। আর এভাবেই আপনি ভিডিওর মাধ্যমে আপনার কোর্স বিক্রি করতে পারেন। 

স্টিকারের মাধ্যমে আয় করার উপায়

আপনি যখন ফেসবুকে ফেমাস হয়ে যাবেন, তখন আপনার ভিডিও বা কন্টেন্ট দেখার বা পাওয়ার জন্য আপনার অডিয়েন্সরা আপনাকে স্টিকার দেওয়ার মাধ্যমে উৎসাহিত করবে। এইসব স্টিকার তারা ফেইসবুক থেকে ক্রয় করে তাদের পছন্দের ব্যক্তিদের দিয়ে থাকে। সুতরাং যখন আপনার একটি নির্দিষ্ট সংখ্যক ফ্যান ফলোয়ার হবে তখন তারা আপনাকে এই স্টিকার প্রদান করবে। আর এই স্টিকার আপনার এ্যাকাউন্টে জমা হলে আপনি ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম পাবেন।  

ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করার পদ্ধতি কী

আমরা এতক্ষণ কীভাবে এবং কী কী উপায়ে ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করার উপায় রয়েছে সে সম্পর্কে জানলাম। এখন আমরা চাইলেই কি এভাবে ভিডিও আপলোড করেই আয় শুরু করতে পারি? তার উত্তর অবশ্যই হবে, না! কারণ যে কেউ ভিডিও আপলোড করলেই সে ফেসবুক থেকে টাকা পাবে না। 

কারণ টাকা আয় করার জন্য ফেসবুকের রয়েছে সুনির্দিষ্ট নীতিমালা। এই সুনির্দিষ্ট নীতিমালার মধ্যে রয়েছে কিছু শর্ত।  আর এই শর্ত হচ্ছে ফেসবুক মনিটাইজেশন অপশন চালু করা। যারা এই ফেসবুক মনিটাইজেশন অপশন টি চালু করতে পারবে বা ফেসবুক মনিটাইজেশনের যোগ্যতা অর্জন করবে, কেবলমাত্র তারাই ফেসবুক থেকে ভিডিও আপলোড করে টাকা আয় করতে পারবে। সুতরাং সবার আগে আমাদেরকে জানতে হবে কিভাবে ফেসবুক মনিটাইজেশন করা যায়। তাহলে চলুন জেনে নিই কিভাবে ফেসবুক মনিটাইজেশন করা যায়। 

আরো পড়ুনঃ

ফেসবুক মনিটাইজেশন কি?

প্রথমে আমরা জানি ফেসবুক মনিটাইজেশন কী? Facebook মনিটাইজেশন হল এমন একটি প্রোগ্রাম যাতে যোগদানের পর সবাই Facebook ভিডিও আপলোড করে অর্থ উপার্জন করতে পারে। এই প্রোগ্রামটি কানাডা, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশে দীর্ঘদিন ধরে চলছিল কিন্তু এখন বাংলাদেশেও এটি এসেছে অল্পদিন আগে।

আরো পড়ুনঃ

ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন সুবিধা গুলো কী কী?

ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন সুবিধাগুলো হচ্ছে,  

  • আপনি যত বেশি মূল্যবান কাজ করবেন, তত বেশি আয় করতে পারবেন।
  • আপনি ইউটিউবে আপনার ফেসবুক ভিডিও আপলোড করতে পারেন এবং একই ভিডিও থেকে দুটি জায়গায় অর্থ উপার্জন করতে পারেন।
  • ফেসবুকের ভিডিও ইউটিউবের থেকে বেশি আয় করে, কারণ এর ভিডিওগুলিতে স্কিপ করার কোনো অপশন নেই।
  • আপনি ফেসবুক ভিডিওতে যেকোনো ধরনের ভিডিও প্রকাশ করতে পারেন।
  • ফেসবুকে আপনার আলাদা পরিচয় থাকবে। আপনার নিজস্ব সম্প্রদায় থাকবে এবং লোকেরা আপনাকে বিশ্বাস করবে।
  • সমাজে আপনার আলাদা পরিচয় হবে।
  • ভালো কাজ করলে ফেসবুক ভিডিও থেকে একটি ভেরিফায়েড ফেসবুক ব্যাজ পাবেন।

ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন যোগ্যতা

Facebook ভিডিও মনিটাইজেশনের যোগ্যতা সম্পর্কে কথা বলতে গেলে, আপনার ফেসবুক পেজে ১০০০০ লাইক বা ১০০০০ ফলোয়ার থাকতে হবে, পেজে আপলোড করা Facebook ভিডিওগুলি কমপক্ষে ৩ মিনিটের হওয়া উচিত এবং সমস্ত ভিডিও গত ২ মাসে ৩০ হাজার ভিউ হওয়া উচিত। মনে রাখবেন, শুধুমাত্র সেই ভিডিওটি গণনা করা হবে যা গড়ে ১ মিনিটের জন্য দেখা হয়েছে।

ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করার জন্য কী করা দরকার?

Facebook-এ আপনার নিজের তৈরি করা ভিডিওগুলিকে মনিটাইজেশন করতে, আপনার একটি FB পেইজ থাকতে হবে৷ আপনি যদি আপনার প্রোফাইল থেকে ভিডিও আপলোড করেন, তাহলে আপনি সেগুলি লক্ষ লক্ষ মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারবেন না এবং আপনি সেগুলি থেকে উপার্জনও করতে পারবেন না৷

অতএব, প্রথমে আপনার ফেসবুক পেজ তৈরি করুন এবং এর পাশাপাশি আপনাকে কিছু বিশেষ জিনিস মাথায় রাখতে হবে, তবেই আপনি আপনার ভিডিও থেকে আয় শুরু করতে পারবেন।

আনুষ্ঠানিকভাবে, Facebook এর এই বৈশিষ্ট্যটি শুধুমাত্র সেই সমস্ত লোকেদের জন্য দিয়ে থাকে যাদের বয়স ১৮ বছরের বেশি৷ আপনার Facebook পেজটি মনিটাইজেশন করার আগে, আপনার পেজে মোট ৩০০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম এবং ১০,০০০ ফলোয়ার থাকা প্রয়োজন৷

আপনার ভিডিওটি কমপক্ষে ১ মিনিটের জন্য দেখা উচিত তবেই এটির ভিউ গণনা করা হবে।

আপনার ভিডিও অবশ্যই YouTube এবং Facebook এর নীতি মেনে চলবে; অশ্লীল এবং অনৈতিক ভিডিওগুলি এদের নীতিমালার YouTube এর বিরুদ্ধে।

আপনার ভিডিওটি আকর্ষণীয় হওয়া উচিত যাতে ভিডিওটি ভাইরাল হয় এবং আপনি এটি থেকে ভাল অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

কিভাবে ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করবেন? – (ধাপে ধাপে)

1. একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করুন

একজন ভিডিও ক্রিয়েটর হিসেবে, আপনার যদি FB তে একটি অ্যাকাউন্ট থাকে তাহলে আপনি মাত্র ১ মিনিটে একটি নতুন ফেসবুক পেজ তৈরি করতে পারবেন, এর জন্য আপনি Facebook এর মেনুতে একটি create page অপশন পাবেন, যার মাধ্যমে আপনি একটি নতুন পেজ তৈরি করতে পারবেন।

2. ভিডিও আপলোড করুন

টেকনোলজি এবং বিনোদনমূলক ভিডিও আপনি যে ক্যাটাগরিরই বানান না কেন, পেজ তৈরি হওয়ার পর আপনি Add video অপশন দেখতে পাবেন, যেটিতে ক্লিক করে আপনি আপনার পেজে একটি নতুন ভিডিও আপলোড করতে পারবেন।

কিভাবে ফেসবুক পেজে ভিডিও আপলোড করবেন?

ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করা খুবই সহজ। যার জন্য নিচে উল্লেখিত পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।

প্রথমে আপনাকে আপনার পেজ খুলতে হবে যেটিতে আপনি ফেসবুক ভিডিও আপলোড করতে চান। এখন Create a Post এ ক্লিক করুন এবং Photo/Video অপশনটি নির্বাচন করুন। এর পরে, আপনি যে ভিডিওটি ফেসবুকে আপলোড করতে চান তা নির্বাচন করুন, তারপরে পরবর্তী বোতাম টিপুন।

পরবর্তীতে আপনি ভিডিওর উপরে Edit বাটন দেখতে পাবেন, এতে আপনি আপনার ভিডিওতে বিভিন্ন ধরনের ফিল্টার প্রয়োগ করতে পারবেন, অন্যথায় Done এ ক্লিক করুন এবং এগিয়ে যান।

এখন আপনার ফেসবুক ভিডিওর জন্য একটি ভাল শিরোনাম লিখুন এবং শেয়ার বোতাম টিপুন। এখানে আপনি দুই ধরনের বক্স দেখতে পাবেন, এর মধ্যে নিউজ ফিড সম্বলিত বক্সটি নির্বাচন করুন এবং শেয়ার বোতাম টিপুন। আপনার ফেসবুক ভিডিওটি শেয়ার করার সাথে সাথেই প্রকাশিত হয়ে যাবে।

3. ভিডিওটি শেয়ার করুন

প্রাথমিকভাবে, আপনার FB পেইজে ভিডিও দেখার জন্য, এটি আপনার প্রোফাইলে বা বিভিন্ন সামাজিক মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে শেয়ার করুন। যাতে আরও বেশি সংখ্যক Facebook ব্যবহারকারী আপনার ভিডিও দেখে এবং লোকেরা যদি সত্যিই আপনার ভিডিও পছন্দ করে, তাহলে Facebook স্বয়ংক্রিয়ভাবে লক্ষ লক্ষ লোকের কাছে আপনার ভিডিওটি সুপারিশ করবে।

4. ভিডিও মনিটাইজেশন

কিছু সময়ের জন্য নিয়মিত ভিডিও আপলোড করার পরে, যখন আপনার Facebook পেজের ভিডিওগুলি গত ৬০ দিনে ১০,০০০ ফলোয়ার এবং ৩০,০০০ ঘন্টা দেখার সময় পায়, তখন আপনি আপনার ভিডিওগুলি মনিটাইজেশন করতে প্রস্তুত৷ এর পরে আপনার ভিডিওগুলিতে বিজ্ঞাপনগুলি প্রদর্শিত হবে এবং তার ভিত্তিতে আপনার উপার্জন আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমা হবে।

ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করা পুরো প্রক্রিয়াটি জানার পরে, এখন প্রশ্ন আসে যে, কিভাবে ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন করা যায়? 

প্রথমে আপনার ডিভাইসের ব্রাউজারের মাধ্যমে Google সার্চ বারে facebook creator studio টাইপ করে অনুসন্ধান করুন।

অনুসন্ধানের পর ফেসবুক ক্রিয়েটরদের জন্য তৈরি একটি ওয়েবসাইট দেখতে পাবেন।  এখন ঐ ওয়েবসাইটে আপনি যে অ্যাকাউন্ট দিয়ে ফেসবুকে একটি পেজ তৈরি করেছেন সেই অ্যাকাউন্ট দিয়ে লগইন করুন। এরপর এখন আপনি যে পেইজকে মআিটাইজ করতে চান, চান সেটি নির্বাচন করুন।

ওটা নির্বাচনের পর এখন আপনি সাইড বারে অনেকগুলি অপশন দেখতে পাবেন যেখানে আপনাকে মনিটাইজেশন অপশনে ক্লিক করতে হবে। এটি করার পরে আপনি তথ্য পাবেন যে আপনার ফেসবুক মনিটাইজেশনের জন্য সক্ষম হয়েছে কিনা? 

যদি এটি সক্রিয় থাকে এবং আপনার নির্ধারিত কিছু ফলোয়ার থাকে এবং ভিডিও দেখার সময়ও নির্ধারিত সীমারেখা অতিক্রম করে থাকে, তাহলে এখানে আপনি মনিটাইজেশন সেট আপ এর অপশন দেখতে পাবেন।

এটি করার সাথে সাথে আপনি একটি নতুন পেইজে আসবেন যেখানে আপনি Apply Now এর একটি বোতাম দেখতে পাবেন, যেখানে ক্লিক করলে একটি ফর্ম প্রদর্শিত হবে, যা জমা দেওয়ার পরে আপনার পর্যালোচনাটি Facebook টিমের কাছে পাঠানো হবে এবং আপনার সাবমিট প্রক্রিয়া ঠিক থাকলে, ফেইসবুক থেকে আপনাকে মনিটাইজেশনের জন্য নির্বাচিত করা হবে এবং আপনি উপার্জন শুরু করতে পারবেন।

সচারচর জিজ্ঞাস্য (FAQs)

কিভাবে Facebook থেকে পেমেন্ট নিতে হয়?

ইউটিউব থেকে যেমন পেমেন্ট আসে আপনার অ্যাকাউন্টে, ঠিক তেমনি ফেসবুক থেকেও আসে। ক্রিয়েটর প্রোগ্রামে যোগদান করার সময়, আপনাকে আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের বিবরণ দিতে হবে। যখনই আপনার Facebook অ্যাকাউন্টে $১০০ থাকবে, তা আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তরিত হবে।

ফেসবুকে কত ভিউ কত টাকা?

ফেসবুকে কত ভিউ হলে কত টাকা দেয় সেটি নির্ভর করে কোন দেশ থেকে ভিডিও ভিউ হচ্ছে তার উপর। যদি বাংলাদেশ থেকে ভিউ হয় তাহলে প্রতি ভিউ এর জন্য কম পরিমান টাকা পাওয়া যায়। কিন্তু যদি আমেরিকা/ইউরোপ থেকে ভিডিও ভিউ হয় তাহলে অল্প ভিউয়ের জন্য অনেক টাকা পাওয়া যায়।

ফেসবুকে কত ফলোয়ার হলে টাকা পাওয়া যায়

ফেসবুকে আপনার যত বেশি ফলোয়ার থাকবে আপনি তত বেশি এখান থেকে উপার্জন করতে পারবেন। তবে, Facebook থেকে টাকা কামানোর জন্য আপনার Facebook প্রোফাইলে/পেইজে ১০ হাজারের বেশি ফলোয়ার থাকা উচিত।

আরো পড়ুনঃ

উপসংহার 

তো বন্ধুরা, আজকে আমরা ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করার উপায় গুলো বিস্তারিত জানলাম। আশাকরি এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনারা খুব সহজেই নতুন নতুন ভিডিও ফেইসবুকে আপলোড করে আয় করতে পারবেন। তো বন্ধুরা, কেমন লাগলো এই পোস্ট? অনুগ্রহ করে কমেন্ট বক্সে জানান এবং সোশ্যাল মিডিয়াতে আপনার বন্ধুদের মধ্যে এই তথ্যটি শেয়ার করুন!!

Avatar of Shakib Hasan

Blogger and SEO Expert. Founder of Techbdtricks. I always try to explore something new and let the people know about that. Keep me in your prayers.

Leave a Comment