গুগল এডসেন্স দ্বারা ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন করার উপায়

কিভাবে গুগল এডসেন্স ইউটিউব মনিটাইজেশন শুরু করে টাকা আয় করবেন আজকের আর্টিকাল পড়লে তা জানতে পারবেন। ইউটিউব থেকে গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে টাকা আয় করতে আপনাকে YouTube Partner Program-এ অংশগ্রহন করতে হবে।

আপনি কি আপনার ইউটিউব চ্যানেলে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে আয় করতে পারবেন , গুগল এডসেন্স দিয়ে ওয়েবসাইট থেকে যেভাবে আয় করে?

হ্যা, আপনি পারবেন কিন্তু এই বিষয়টি অনেক বেশি জটিল।

একটি গুগল একাউন্ট , মোবাইল নাম্বার, ঠিকানা এবং একটি ওয়েবসাইট হলেই আপনি গুগল এডসেন্স মনিটাইজেশন করে ওয়েবসাইট থেকে আয় করতে পারবেন।

কিন্তু ইউটিউব এর ক্ষেত্রে টাকা উপার্জনের যাত্রা শুরু করাটাই কঠিন।

ইউটিউব এডসেন্স কি?

YouTube Partner Program অনুসারে,  YouTube AdSense বিভিন্ন চ্যানেলের মালিকদের তাদের ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে টাকা আয় করার সুযোগ দেয়।

গুগল এডসেন্স কি এবং কিভাবে কাজ করে?

এটি ওয়েবসাইটের মধ্যে ভিডিও বিজ্ঞাপনের চেয়ে অনেকটা আলাদা। YouTube Partner Program এ অংশগ্রহন করার জন্য আপনার একটি খুব ভালোমানের ইউটিউব চ্যানেল দরকার হবে এবং সাথে চ্যানেলে আপলোডকৃত ভিডিও থাকতে হবে।

যদি আপনার আগে থেকে আপনার জন্য কিংবা আপনার ব্যবসার জন্য একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে থাকে তাহলে সেটি আপনার অতিরিক্ত আয়ের একটি উৎস হতে পারে।

ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার বিভিন্ন উপায়ের মধ্যে Ads হলো মাত্র একটি উপায়।

তাছাড়া, channel membership granting, comments highlighted or live stream chat messages highlighted, ইত্যাদি মাধ্যমে ইউটিউব ইউজারদের কাছ থেকে টাকা নেওয়া যায়।

ইউটিউবের জন্য AdSense Requirements

YouTube Partner Program এর অংশগ্রহন করতে এবং ইউটিউব এডসেন্স ব্যবহার করতে আপনাকে কয়েকটি বিষয় আগে নিশ্চিত করতে হবে। তারপর আপনার চ্যানেল review করার জন্য আবেদন করতে হবে।

আপনার আগে থেকে একটি ভালোমানের ইউটিউব চ্যানেল সাথে আপলোডকৃত ভিডিও, কমপক্ষে ১০০০ সাবস্ক্রাইভার, এবং ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ-টাইম অথবা 10M valid shots views থাকতে হবে।.

 এখানে ইউটিউব পাটনার প্রোগ্রামে এপ্লাই করার requirements উল্লেখ করা হলোঃ

  • YouTube channel monetization policies অনুসরন করুন। YouTube channel monetization policies হলো সে সমস্ত নীতি যেগুলো আপনার ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন করায় সাহায্য করবে। ইউটিউব পার্টনার হিসেবে, ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার জন্য আপনাকে YouTube channel monetization policies মেনে চলার agreements করতে হবে।
  • আপনাকে এমন দেশে বসবাস করতে হবে যেখানে YouTube Partner Program is available রয়েছে।
  • আপনার চ্যানেলে কোনো প্রকার Community Guidelines strikes থাকা যাবে না।
  • আপনার চ্যানেলে শেষ ১২ মাসের মধ্যে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ-টাইম পূরন হতে হবে। অথবা আপনার ইউটিউব শর্টস ভিডিও ১০ মিলিয়ন ভিউস হতে হবে।
  • আপনার চ্যানেলে কমপক্ষে ১০০০ সাবস্ক্রাইভার থাকতে হবে।
  • আপনার একটি এডসেন্স একাউন্ট থাকতে হবে।

subscribers এবং watch time পূরন করা ইউটিউব গুগল এডসেন্স এর সবেচেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জিং কাজ। আপনি এই সবকিছু YouTube Studio এর “Monetization” অপশন থেকে ট্র্যাক করতে পারবেন।

ইউটিউব মনিটাইজেশন গুগল এডসেন্স
গুগল এডসেন্স দিয়ে ইউটিউব মনিটাইজেশন

যদি community guidelines strikes থাকে তাহলেও আপনি এই অপশন থেকে subscriber and watch hours এর সকল ইনফরমেশন দেখতে পারবেন।

YouTube Ads এর প্রকারভেদ

যখন আপনি YouTube Partner Program এর সদস্য হয়ে যাবে , কোন ধরনের বিজ্ঞাপন আপনার ভিডিওতে দেখাবে এবং কোথায় দেখাবে তা আপনি  control করতে পারবেন। এপ্রোভাল পাওয়ার পর এটি নিজে থেকেই আপনার ভিডিও-এর মধ্যে বিজ্ঞাপন দেখানো শুরু করবে, কিন্তু আপনি চাইলে সেটিংস করতে পারবেন।

আপনার ad placement এর অপশনগুলো হলো:

  • Pre-roll (ভিডিও শুরু হওয়ার আগে বিজ্ঞাপন দেখাবে).
  • Mid-roll (ভিডিও চলাকালীন সময়ে বিজ্ঞাপন দেখাবে).
  • Post-roll (ভিডিও শেষ হওয়ার পর বিজ্ঞাপন দেখাবে).

সাধারনত ছোটো ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখানোর সম্ভাবনা কম থাকে, এবং ৮ মিনিটের কম ভিডিও হলে সেখানে mid-roll ads দেখানো হয় না।

ইউটিউব এ গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপনকে ৪ টি ক্যাটাগরীতে ভাগ করা যায়। সেগুলো হলোঃ

  • Skippable video ads – এই ধরনের বিজ্ঞাপন ইউজারদেরকে ৫ সেকেন্ড পর skip করার অনুমতি দেয়। অর্থাৎ, আপনি চাইলে ৫ সেকেন্ড পর বিজ্ঞাপন এড়িয়ে যেতে পারবেন। সব ধরনের ডিভাইসে এই বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হয়।
  • Non-skippable video ads – এই ধরনের বিজ্ঞাপন ইউজারদের skip করার অনুমতি দেয় না। এই বিজ্ঞাপনগুলো ১৫-২০ সেকেন্ডের হয়ে থাকে এবং সব ধরনের ডিভাইসে প্রদর্শিত হয়।
  • Bumper ads – ইউজারদের বিজ্ঞাপন skip করার অনুমতি দেয় না। অন্য বিজ্ঞাপনের সাথে অটোমেটিকভাবে চালু হয়ে যায় এবং এই বিজ্ঞাপনের সময়কাল ৬ সেকেন্ড হয়। সব ধরনের ডিভাইসে বিজ্ঞাপনগুলো প্রদর্শিত হয়।
  • Overlay ads – এই বিজ্ঞাপন ছবি অথবা লেখা আকারে ভিডিও-এর ২০% জায়গা জুরে বিরাজ করে। শুধুমাত্র কম্পিউটার ডিভাইসে প্রদর্শিত হয়।

আপনি YouTube Studio থেকে বিভিন্ন ভিডিওর জন্য বিভিন্ন ধরনের এড এবং ভিডিওর preferences ঠিক করে দিতে পারেন।

কিভাবে ইউটিউব গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলবেন – How To Create A YouTube AdSense Account

সংক্ষেপে বলতে গেলে, ইউটিউব অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে এবং ইউটিউব থেকে টাকা উপার্জন করা শুরু করতে প্রথমে আপনার যে মৌলিক বিষয়গুলি প্রয়োজন হবে তা হলোঃ

  • একটি ইউটিউব চ্যানেল যেটাতে কোনো প্রকার স্ট্রাইক থাকা যাবে না।
  • আপনার চ্যানেল এ কমপক্ষে ১০০০ সাবস্ক্রাইভার থাকতে হবে।.
  • ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম অথবা ১০ মিলিয়ন ইউটিউব শর্টস ভিউ থাকতে হবে।
  • একটি গুগল একাউন্ট।
  • একটি গুগল এডসেন্স একাউন্ট।

যখন আপনি YouTube Partner Program এর জন্য যোগ্য হয়ে যাবেন তখন ইউটিউব স্টোডিও তে গিয়ে এপ্লাই করুন এবং আপনার চ্যানেল রিভিও এর জন্য অপেক্ষা করুন।

যখন ইউটিউব রিভিউ করে আপনাকে পার্টনার প্রোগ্রামের সদস্য বানাবে তখন

যখন আপনি YouTube Partner program হয়ে যাবেন, আপনি তখন গুগল এডসেন্স একাউন্ট ইউটিউব-এর সাথে link করতে পারবেন। আপনার যদি এডসেন্স একাউন্ট না থাকে তাহলে আপনি দেখুন কিভাবে গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলব, তারপর বাকি কাজ করুন।

যদি আপনি সবগুল স্টেপ ঠিকঠাকমতো অনুসনর করতে পারেন আপনি অবশ্যই আপনার ইউটিউব চ্যানেল গুগল এডসেন্স দ্বারা মনিটাইজেশন করতে পারবেন এবং প্রতি মাসে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

More resources: 

আমাদের শেষ কথা

আশা করি ইউটিউব গুগল এডসেন্স সম্পর্কে একটি যথাযথ আইডিয়া পেয়েছেন। আপনার নিজস্ব মতামত নিচে কমেন্ট বক্সে জানিয়ে দেওয়ার অনুরোধ রইল। আর ইউটিউবের জন্য গুগল এডসেন্স এপ্রোভাল পেতে কোনো সমস্যার সম্মুখিন হলে আমাদের জানান, আমরা আপনাকে ভালো পরামর্শ দেওয়ার চেষ্ঠা করবো।

Leave a Comment