Tuesday, November 30, 2021
Homeওয়েবসাইটওয়েবসাইটের প্রয়োজনীয়তা - কেন ওয়েবসাইট থাকা জরুরী?

ওয়েবসাইটের প্রয়োজনীয়তা – কেন ওয়েবসাইট থাকা জরুরী?

বর্তমান পৃথিবীতে প্রায় 1.7 billion বা ১৭০ কুটি ওয়েবসাইট রয়েছে। যা প্রায় পৃথিবীর জনসংখ্যার এক-পঞ্চমাংশ। অর্থাৎ, আমরা বলতেই পারি পৃথিবীতে গড়ে প্রতি ৫ জন মানুষের মধ্যে একজন মানুষের ওয়েবসাইট রয়েছে। তো, কি কারনে মানুষ এত এত ওয়েবসাইট তৈরি করছে? এর প্রয়োজনীয়তা কি? ওয়েবসাইটের সুবিধা কি? কেনই বা ওয়েবসাইট এতো দরকারী? আজকে আমরা এ সকল জিনিস গুলো নিয়েই কথা বলবো।

ওয়েবসাইট কাকে বলে?

ওয়েবসাইট হলো কতগুলো ওয়েব পৃষ্ঠা, ছবি, অডিও এবং ভিডিও এর সমষ্টি মাত্র।

একটি ডোমেইনের অধিনে থাকা একাধিক ওয়েব পেইজের সমষ্টিকেই ওয়েবসাইট বলে।

যখন কোনো ডোমেইন নামের অধিনে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা হয় তখন ঐ ডোমেইনটি দিয়ে ওয়েবসাইটকে এক্সেস করা যায়।

যেমন, কেউ যদি আমাদের ডোমেইন লিখে সার্চ করে তাহলে সে আমাদের ওয়েবসাইটকে এক্সেস করতে পারে।

অবশ্যই পড়ুনঃ

কেন আপনার ওয়েবসাইট থাকা দরকার

বর্তমান পৃথিবীতে ওয়েবসাইট হচ্ছে একটি বাড়ি কিংবা দোকানের মতো।

মানুষের জীবন ধারনের জন্য যেমন বাসস্থান অত্যাবশ্যকীয় ঠিক তেমনি অনলাইন জগতে টিকে থাকার জন্য ওয়েবসাইট অতি গুরুত্বপূর্ন।

ওয়েবসাইট হচ্ছে ব্যাক্তির ভবিষ্যত পরিচিতি।

পৃথিবীতে ওয়েবসাইট তৈরির হার যেভাবে বাড়ছে, কল্পনা করা হয় যে ২০৩০ সালের মধ্যে প্রত্যেক মানুষেরই একটি নিজস্ব ওয়েবসাইট হয়ে যাবে।

নিজের ব্যবসার প্রচারণা থেকে শুরু করে ব্লগিং, অনলাইন কেনাকাটা, ড্রপ শিপিং, দেশের খবরাখবর, এবং বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটের উপর নির্ভর হতে হয়।

আসলে বলতে গেলে ওয়েবসাইটের প্রয়োজনীয়তা কিংবা গুরুত্ব অপরিসীম।

ওয়েবসাইট থাকলে আপনার কি কি লাভ?

প্রথমত বলি, ওয়েবসাইট থাকলে আপনি সেই ওয়েবসাইট থেকে বিভিন্ন উপায়ে আয় করতে পারবেন।

ওয়েবসাইট থেকে আয় করতে এই আর্টিকালটি পড়ুনঃ ওয়েবসাইট তৈরি করে আয় করার উপায়

তাছাড়া, একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি চাইলে যেকোনো একটি বিজনেস দাড় করাতে পারবেন।

আপনি যদি একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেন এবং সেখানে নিয়মিত লেখালেখি করেন তাহলে আপনার ওয়েবসাইটে অনেক পরিমান ভিজিটর আসবে।

সেই ভিজিটরদের আপনি আপনার কাস্টমার বানিয়ে নিতে পারবেন।

অর্থাৎ, আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটরদের কাছে আপনি আপনার পণ্য বিক্রি করতে পারবেন কিংবা সেবা দেওয়ার মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

তারপর আপনার যদি একটি ছোট কিংবা মাঝারি আকারের বিজনেস থেকে থাকে তাহলে আপনার কাস্টমারদের অধিক বিশ্বাস অর্জনের জন্য হলেও আপনার একটি ওয়েবসাইট থাকা দরকার।

একটি ওয়েবসাইটের প্রয়োজনীয়তার কথা কিংবা লাভের কথা সারাদিন বলেও শেষ করা যাবে না।

ওয়েবসাইটের বিভিন্ন প্রয়োজনীয়তা এবং সুবিধা

ওয়েবসাইটের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম।

বিভিন্ন মানুষ বিভিন্ন প্রয়োজনে ওয়েবসাইট তৈরি করে থাকে।

যদি ওয়েব সাইটের প্রয়োজনীয়তা না থাকতো তাহলে কেন মানুষ এটি তৈরি করতো

তেমনি কয়েকটি প্রয়োজনের কথা নিচে তুলে ধরা হলো-

অনলাইন থেকে টাকা আয়

একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইন থেকে বিভিন্ন উপায়ে টাকা আয় করা যায়।

আপনার যদি একটি ওয়েবসাইট থাকে এবং সেখানে পর্যাপ্ত পরিমানে ভিজিটর থাকে তাহলে আপনি গুগল এডসেন্স, এফিলিয়েট মার্কেটিং , স্পনসর রিভিউ, ব্যানার এড সহ বিভিন্ন উপায়ে এর থেকে আয় করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

গুগল এডসেন্স কি কিভাবে Google Adsense থেকে আয় করতে হয়?

Online brand তৈরি করা

একটি ওয়েবসাইট অনলাইনের ব্যান্ডের মতো কাজ করে। আপনি খেয়াল করলে দেখবেন এমন কোনো ব্যান্ড নাই যাদের অনলাইনের কোনো ওয়েবসাইট নাই।

আপনি যেকোনো ব্যান্ডের কথাই বলুননা কেন, প্রত্যেকেরই অনলাইনে একটি ওয়েবসাইট রয়েছে। আর এই ওয়েবসাইট ব্র্যান্ডের মূল্য বৃদ্ধি করে। তাই, একটি ব্র্যান্ড তৈরি করার জন্য ওয়েবসাইট খুব প্রয়োজন।

নিজ ব্যবসার বিজ্ঞাপন

আপনার যদি ছোটখাটো, মাঝারী কিংবা বড় কোনো ব্যবসা থাকে, তাহলে আপনার ব্যবসা প্রচার করার জন্য ওয়েবসাইট হতে পারে আপনার প্রধান হাতিয়ার।

যেকোনো ব্যবসা, মোবাইলের দোকান, মুদির দোকান, কাপড়ের ব্যবসা, ডিজিটাল পণ্যের ব্যবসা যাই হোক না কেন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি আপনার নিজের ব্যবসার বিজ্ঞাপন চালাতে পারেন।

খুব সহজে সেবা প্রধান

একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি আপনার সেবা মানুষের কাছে পৌছে দিতে পারেন।

আপনি যেই বিষয়ে দক্ষ, মনে করুন আপনি খুব সুন্দর ওয়েবসাইট বানাতে পারেন। তাহলে এই ওয়েবসাইট তৈরি করার সেবা আপনার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিশ্বের যেকোনো জায়গার দিতে পারবেন।

বিশ্বব্যাপি প্রসার

একটি ওয়েবসাইট মানে সারা বিশ্ব থেকে সবাই এটি এক্সেস করতে পারবে।

তাই আপনার সেবা কিংবা পণ্য কিংবা যেকোনো বিজ্ঞাপনে আপনি সারা বিশ্বকে টার্গেট করতে পারবেন।

চিন্তা করতে পারতেছেন এইটা কত বড় একটা বিষয়। আপনি আপনার যেকোনো দক্ষতাকে সারা বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে পারতেছেন। আপনার পণ্য কিংবা এক্টিভিটি সারা বিশ্ব থেকে দেখতে পাবে।

ক্রেতার সংখ্যা বৃদ্ধি

একটি ওয়েবসাইট থাকলে বিভিন্ন কারনে ক্রেতার সংখ্যা বৃদ্ধি পায়।

প্রথমত, আপনি আপনার ওয়েবসাইটে গুগল থেকে ফ্রিতে ভিজিটর কিংবা কাস্টমার পাবেন।

তাছাড়া, আপনি সেসব কাস্টমারের কাছে খুব সুন্দর করে আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন।

সারা বিশ্ব থেকে আপনার ওয়েবসাইট এক্সেস করতে পারবে।

আপনার একটি ব্র্যান্ড তৈরি হবে এতে করে আপনি কাস্টমারদের বিশ্বাস অর্জন করতে সক্ষম হবেন।

এরকম বিভিন্ন কারনে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ক্রেতার সংখ্যা বৃদ্ধি হয়।

বিশ্বাস অর্জন

আপনি একটি জিনিস চিন্তা করুন। মনে করুন আপনি একটি জিনিস কিনতে চান যেকোনো একটি ফেসবুক পেইজ থেকে।

এ জিনিসটি কেবল মাত্র ২ টি কম্পানি বিক্রি করে থাকে ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে।

কিন্তু সেখানে একটি কম্পানির ওয়েবসাইট আছে এবং আরেকটি কম্পানির কোনো ওয়েবসাইট নাই।

তাহলে আপনি কোন কম্পানি থেকে পণ্যটি কিনবেন? অবশ্যই যে কম্পনির ওয়েবসাইট আছে তাদের কাছ থেকে কিনবেন।

এভাবে একটি ওয়েবসাইট একটি কাস্টমারের মনে বিশ্বাস জোগাতে সহায়তা করে।

SERP এ জায়গা দখল

Google হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সার্চ ইঞ্জিন এবং এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা অগনিত। কেমন হবে যদি আপনি গুগলের এর SERP এ জায়গা দখল করে নিতে পারেন!

হ্যা, আপনি আপনার ওয়েবসাইটের এসইও করার মাধ্যমে গুগলের SERP এ জায়গা করে নিতে পারেন।

SERP হলো Search Engine Result Page

গুগলে কোনো কিছু লিখে সার্চ করার পর যেই পেইজে ফলাফল দেখানো হয় তাকে SERP বলে।

মনে করুন, আপনার একটি মোবাইলের দোকান আছে।

এখন কেউ যদি মোবাইল কিনতে চায় তাহলে সে সবচেয়ে ভালো মোবাইল লিখে সার্চ করে আপনার ওয়েবসাইট সেখানে দেখতে পেল।

গুগলে সার্চ করে আপনার ওয়েবসাইট দেখা, এটি খুব বড়সড় একটি বিষয় কিন্তু।

তখন সে আপনার ওয়েবসাইটকে একটি ব্রান্ড ভাবা শুরু করবে। এবং আপনার কাছ থেকে আপনার সেবা কিংবা পণ্য তার কিনে নেওয়ার চান্স ৯০%

আরো পড়ুনঃ

নতুন নতুন ব্যাবসা তৈরি করা যায়

আপনার যদি একটি ওয়েবসাইট থাকে এবং সেই ওয়েবসাইটে প্রচুর ভিজিটর থাকে তাহলে এর মাধ্যমে প্রতিনিয়ত আপনি নতুন নতুন ব্যবসা তৈরি করার উদ্যোগ নিতে পারবেন।

একটি ব্যবসা তৈরি করার পর আপনার ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপন দিবে কিংবা সুন্দর করে লিখে পোস্ট দেওয়ার পর আপনার ব্যবসায় সেখান থেকে কাস্টমার জেনারেট করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

ঘরে বসে অনলাইনে কি কি ব্যবসা শুরু করা যায়

নতুন নতুন দক্ষতা অর্জন করা যায়

একটি ওয়েবসাইট বানিয়ে নতুন নতুন অনেক দক্ষতা অর্জন করা যায়।

বর্তমান পৃথিবীতে ৪০% এর বেশি ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি। তাই আপনিও যদি সহজে ওয়েবসাইট বানাতে চান তাহলে অবশ্যই ওয়ার্ডপ্রেসকে বাছাই করবেন।

আর অনেক দিন এই ওয়ার্ডপ্রেসের সাথে জড়িত থাকার ফলে আপনার অনেক দক্ষতা অর্জন হবে। যেমনঃ ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল, ম্যানেজমেন্ট, ওয়ার্ডপ্রেস থিম, ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন, এসইও, ডিজিটাল মার্কেটিং ইত্যাদি।

এইসব দক্ষতাকে কাছে লাগিয়ে আপনি ফাইবার সহ বিভিন্ন ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেসে সার্ভিস দিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন।

অবশ্যই পড়ুনঃ

Conclusion

ওয়েবসাইটের প্রয়োজনীয়তা এবং কেন ওয়েবসাইট দরকার এবং এর সুবিধাগুলো কি এই বিষয়ে আশা করি বুঝে গেছে।

মূলত, আপনি যেকোনো কিছু করতে চাইলে এবং অন্যান্য মানুষকে আপনার কর্মকান্ড সম্পর্কে জানাতে চাইলে এবং এর মাধ্যমে আপনার বিক্রি বেশি করতে চাইলে ওয়েবসাইটের বিকল্প কিছুই হতে পারে না।

আজকের আর্টিকাল কেমন লেগেছে, জানাতে ভুলবেন না। আপনি কি ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান? নিচে কমেন্ট করে জানান।

Tech BD Trickshttp://techbdtricks.com
তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পর্কিত বিভিন্ন খবর সবার আগে পেতে চাইলে Tech BD Tricks এর সাথেই থাকুন। দেশের বেকারত্ব হ্রাস এবং টেকনোলজি বিষয়ক তথ্য মানুষের কাছে সঠিকভাবে পোছে দিতে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Recenty published

Most Popular

error: Content is protected !!