পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম জানার মাধ্যমে ভিসা সংক্রান্ত সকল প্রতারণা এড়াতে পারবেন। এই পোস্টে আপনাদের সাথে সৌদি ভিসা চেক করার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রদান করবো। 

বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স সৌদি আরব থেকে আসে। কাজেই বুঝতে পারছেন প্রচুর পরিমাণ বাঙালী সেখানে কাজের সন্ধানে গিয়ে থাকেন। তাঁদের বড় একটি অংশ কিভাবে সৌদি ভিসা চেক করে তা না জানার ফলে প্রতারিত হয়। 

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম

Saudi Visa Check করার মাধ্যমে আপনার ভিসার মেয়াদ, কোন ধরণের ভিসা ও প্রয়োজনীয় বিভিন্ন তথ্য পাবেন যা পরবর্তীতে কাজে লাগবে। প্রবাসী ইচ্ছুক ব্যক্তিরা ছাড়াও যারা হজ্ব পালনে সৌদি যাবেন তারাও ভিসা চেক করে নিবেন যাতে করে প্রতারণা এড়ানো যায়। 

কথা আর না বাড়িয়ে চলুন ধাপে ধাপে সৌদি ভিসা চেক করার নিয়ম দেখে নেওয়া যাক। তবে আগেই বলে রাখি বর্তমানে enjazit.com.sa এই ওয়েবসাইটে আর সৌদি ভিসা চেক করা যাবে না। 

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি ভিসা চেক

সৌদি ভিসা চেক করতে প্রথমে এই লিংকে চাপ দিন। এরপর নিচের তথ্য গুলো প্রদান করুনঃ

  • Current nationality
  • Passport number
  • Visa Issuing Authority
  • visa type
  • Image icon
saudi visa check
পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম 5

উপরে প্রদত্ত তথ্যগুলো সঠিকভাবে প্রদান করে “Search” বাটনে ক্লিক করা মাত্রই আপনার ভিসার বিস্তারিত সকল তথ্য দেখতে পারবেন। 

সৌদি ভিসা চেক ইংরেজি

সৌদি আরবের জাতীয় ভাষা আরবি হওয়াতে তাঁদের ভিসা চেক ওয়েবসাইটও আরবিতে করা হয়েছে। আপনি লিংকে গেলে আরবি লেখা দেখলে হয়তো বুঝবেন না। কাজেই ওয়েবসাইটের ভাষা ইংরেজিতে পরিবর্তন করে নিবেন। 

saudi visa check english
পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম 6

এক্ষেত্রে উপরের ছবির মত E লেখা গোলাকার বাটনে চাপ দিলে তাঁদের ওয়েবসাইট স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইংরেজি ভাষায় কনভার্ট হবে। আশা করি সৌদি ভিসা চেক ইংরেজি বুঝতে পেরেছেন। 

সৌদি ভিসা স্ট্যাম্পিং স্ট্যাটাস চেক

উপরে বর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনি সৌদি ভিসা স্ট্যাম্পিং স্ট্যাটাস চেক করতে পারবেন। তবে আরও একবার বলে দিচ্ছি যদিও এই পদ্ধতিতে আপনি ওয়ার্ক ভিসা চেক করতে পারবেন না। 

ওয়ার্ক ভিসা ব্যতিত অন্য যেকোনো ভিসা চেক করার জন্য আপনার জাতীয়তা (বাংলাদেশ বা অন্য যেকোনো নাম), পাসপোর্ট নম্বর (এটা পাসপোর্টে পেয়ে যাবেন), আপনার Visa Issuing Authority (এটা ঢাকা বা যে দেশ থেকে করবেন তার রাজধানী হবে)। এই সকল তথ্য দিয়ে ক্যাপচা পূরণ করার পর আপনার ওয়ার্ক ভিসা ছাড়া অন্য যেকোনো ভিসার তথ্য দেখা যাবে। 

সৌদি ভিসার তথ্য যাচাই করুন

আপনার ইস্যুকৃত পাসপোর্ট নম্বর দ্বারা মোফা ভিসা চেক করার পরপর ভিসা আবেদন স্ট্যাটাস দেখতে পারবেন। তবে ভিসা যদি ইস্যু যোগ্য হয় তবেই তা দেখা যাবে। এক্ষেত্রে আপনার ভিসার আবেদন নম্বর, কোম্পানির বা স্পন্সরের নাম, অ্যাপ্লিকেশন নম্বর ও অন্যান্য তথ্য দেখাবে। 

এই পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনি ওয়ার্ক ভিসা খুব সহজে চেক করতে পারবেন। সৌদি ওয়ার্ক ভিসা চেক করে প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে পারবেন। 

সৌদি ভিসা বাংলা অনুবাদ করার নিয়ম

সৌদি ভিসা চেক করার সময় স্পন্সর কিংবা কোম্পানির নাম আরবিতে শো করবে। এছাড়া আরও কিছু তথ্য রয়েছে যা আরবি ভাষায় শো করে। 

saudi visa translate
পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম 7

এক্ষেত্রে আপনি উপরের ছবির মত গুগল ট্রান্সলেটরে গিয়ে বামপাশে আরবি লেখা (ফোনের ক্ষেত্রে উপরের অংশে) কপি-পেস্ট করবেন। তাহলে এটির বাংলা ও ইংরেজি অথবা যেকোনো ভাষায় অনুবাদ দেখতে পারবেন।

সৌদি ভিসা চেক সংক্রান্ত সকল প্রশ্নোত্তর 

প্রশ্নঃ সৌদি ভিসা কত প্রকার ও কী কী?

উত্তরঃ সৌদি ভিসা মূলত ৬ প্রকার। এগুল্র প্রকারভেদ হলোঃ  

  1. হজ্জ ভিসা  
  2. ট্যুরিষ্ট ভিসা 
  3. ব্যবসায় ভিসা 
  4. শিক্ষা ভিসা 
  5. ওয়ার্ক ভিসা 
  6. ফ্যামিলি ভিসা

প্রশ্নঃ সৌদি ভিসা পেতে কত দিন সময় লাগে? 

উত্তরঃ ভিসার ধরণের উপর নির্ভর করে সর্বনিম্ন ১ দিন থেকে সর্বোচ্চ ৩০ দিনের মধ্যে সৌদি ভিসা পাওয়া যায়। 

প্রশ্নঃ সৌদি ভিসা পেতে কত টাকা খরচ হয়? 

উত্তরঃ সৌদি ভিসা পেতে ১৫০০ থেকে ২০০০ রিয়াল (সৌদি মুদ্রা) খরচ হবে যা বাংলাদেশি টাকায় ৫০০০০ থেকে ৭৫০০০ হাজার টাকা হয়ে থাকে। 

প্রশ্নঃ সৌদি ওয়ার্ক ভিসায় কোন কাজের চাহিদা বেশি? 

উত্তরঃ বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে গেলে প্লাম্বার, ইলেক্ট্রিশিয়ান, মালি, এসি মেকানিক, অটোমোবাইল, ড্রাইভার এই সকল কাজের চাহিদা ও বেতন তুলনামূলক কিছুটা বেশি হয়ে থাকে। 

প্রশ্নঃ কত বছর হলে সৌদি ওয়ার্ক ভিসা করা যাবে? 

উত্তরঃ আপনার বয়স সর্বনিম্ন ২১ হলে ওয়ার্ক ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। 

প্রশ্নঃ সৌদি আরবের ভিসা চেক করবো কিভাবে?

উত্তরঃ সৌদি আরবের ভিসা চেক করার জন্য আপনাকে MOFA visa check এই ওয়েবসাইটে যেতে হবে। 

প্রশ্নঃ সৌদি আরবের ভিসায় কোম্পানি ও পেশা কিভাবে চেক করব?

উত্তরঃ এটি আপনার ভিসার Sponsor এবং Occupation এই দুইটি অংশ হতে দেখে নিতে হবে। 

শেষ কথা 

আশা করি পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম বুঝাতে পেরেছি। সৌদিতে যাওয়ার পূর্বে এখন থেকে আগে আপনার ভিসা চেক করে দেখে নিবেন এটি আদৌ আসল ভিসা কিনা। আপনার সৌদি ভিসা সংক্রান্ত যেকোনো প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করে জানাবেন এবং এই পোস্টটি টাইমলাইনে শেয়ার করে রাখুন।

Leave a Comment