ব্লগার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানুন

ব্লগার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানুন

আসসালামু আলাইকুম।  ব্লগার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানুন । তো, কেমন আছেন? আসা করি মহান আল্লাহর রহমতে ভালোই আছেন। আলহামদুলিল্লাহ আমাকেও তিনি ভালো রেখেছেন। তো চলুন এবার কাজের কথায় আসি। আমি আজকে আপনাদের সাথে আজকে ব্লগার নিয়ে কথা বলবো। ব্লগার সম্পর্কে আপনাদেরকে বিস্তারিত জানানোর চেষ্টা করবো। ব্লগারের সকল খুটিনাটি নিয়ে আলোচনা করার জন্যই আজকের এই পোষ্ট। তো চলুন শুরু করি আজকের আলোচনা।

 

ব্লগার কি?

 

ব্লগার হচ্ছে একটি ওয়েবসাইট। এটি একটি গুগোলের প্রডাক্ট। অর্থাৎ এই ওয়েবসাইটটির ওনার হচ্ছে গুগোল। তাহলে বুঝতেই পারছেন যে এটি একটি জনপ্রিও এবং শতভাগ ‍সিকিউরিটি সম্পন্ন একটি ওয়েবসাইট। এটি মুলত একটি ওয়েবসাইট বিল্ডার ওয়েবসাইট। মানেটা হচ্ছে আপনি এই ব্লগারকে ব্যাবহার করে প্রফেশনাল মানের একটি ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন তাও আবার সম্পুর্ন বিনামূলে। আপনারা ব্লগারকে ব্যাবহার করে প্রায় সকল ধরনের ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন। তবে ব্লগার আপনাকে তাদের সাবডোমেইন প্রভাইট করবে (ব্লগসপট.কম)। আপনারা চাইলেই সেটাকে টপ লেভের ডোমেইনে ট্রান্সফার করতে পারবেন। তার জন্য আপনাকে পে করতে হবে। মানে, আপনি যদি আপনার ওয়েবসাইটটিকে টপ লেভেল কোনো ডোমেইনে নিয়ে জেতে চান তাহলে আপনাকে সেই টপ লেভেল ডোমেইনটি কিনে তারপর আপনার ওয়েবসাইটে এড করতে হবে। তাছাডা আপনি সাবডোমেইনেও আপনারে সাইটটিকে রান করাতে পারবেন।(ব্লগার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানুন)

 

এখন আমরা ব্লগারের বিভিন্য ফিচার সম্পর্কে আপনাকে জানাবো।

 

পোষ্টঃ

 

ব্লগারের ফিচারগুলোর মধ্যে প্রথমেই রয়েছে ব্লগ পোষ্ট। এই সেক্টরে আপনি আপনার ওয়েবসাইটটির জন্য প্রয়োজনিয় পোষ্ট গুলো বা কন্টেন্ট গুলো পাবলিশ করতে পারবেন। পোষ্টগুলো ড্রাফটে সেভ করে রাখতে পারবেন। অপ্রয়োজনিয় কনটেন্ট গুলো ডিলিট করতে পারবেন। অর্থাৎ আপনি আপনার ওয়েবসাইটের পোষ্ট রিলেটেড সকল কাজ এই সেক্টর থেকে কন্ট্রোল করতে পারবেন।

 

স্টেটঃ

 

ব্লাগারের এই সেক্টরের মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের ট্রাফিক এনালাইসিস করতে পারনে। কোন পোষ্টে কত ভিও হচ্ছে এসব দেখতে পারবেন। আবার ব্লগারের এই সেক্টরে বেষ কিছু বিভাগ রয়েছে। যেগুলো এনালাইসিস করার মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের সকল ভিসিটরসকে খুব ভালো খাবে এনালাইসিস করতে পারবেন। কোন কোন দেশ থেকে কেমন ট্রাফিক আসছে সেটা দেখতে পারবেন। এগুলো সঠিকভাবে এনালাইসিস করতে পারলে আপনার বুঝতে সুবিধা হবে আপনার পরবর্তি পোষ্ট গুলো কেমন হওয়া দরকার এবং কাদের জন্য লিখতে হবে।

 

কমেন্টঃ

 

আপনার ওয়েবসাইটে যতগুলো কমেন্ট করা হবে সবগুলো আপনি এই সেক্টরে দেখতে পারবেন। আপনার কোন পোষ্টে কতগুলো কমেন্ট করা হলো, কে করলো, কোন দেশ থেকে করা হলো ইত্যাদি সকল বিষয় আপনি খুব সহজে এই সেক্টারর মাধ্যমে দেখতে পারবেন। আপনার ভিসিটরদের কমেন্টের উপর ভিত্যি করে আপনাকে আপনার ওরয়েবসাইটের পরবর্তি পোষ্টগুলো করতে হবে।

 

আর্নিং

 

এটা মুলত গুগোল এডাসেন্স এার একটি অংশ। আপনি এই সেক্টরের মাধ্যমে দেখতে পারবেন আপনার এই ব্লগটি এডসেন্স এর জন্য কুয়ালিফাই হয়েছে কি না। যদি কুয়ালিফাই হয়ে যায় তাহলে আপনি এখান থেকেই আপনার ব্লগের বা ওয়েবসাইটের জন্য এডসেন্স এ আবেদন করতে পারবেন। তারপরা আপনার ওয়েবসাইটে এডসেন্স এপ্রুভ হলে আপনি ইনকাম করা শুরু করতে পারবেন।

 

পেইজঃ

 

ব্লগারের এই সেক্টরে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য প্রয়োজনিয় সকল পেইজ বানাতে পারবেন। এটা অনেকটা টোষ্টের মতই। আপনি পোষ্টের মত করেই আপনার ওয়েবসাইটটিতে প্রয়োজনিয় সকল পেইজ বানাতে পারবেন এবং আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগকে আরো আকর্ষনিয় করে তুলতে পারবেন।

 

লেআওটঃ

 

এখানে বা ব্লগারের লেআওট সেক্সনে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের এর সকল প্রকার ডিজাইন কন্ট্রোল করতে পারবেন। আর এখানে সব থেকে মজার বিষয় হচ্ছে আপনাকে ওয়েবসাইট ডিজাইন কন্ট্রোল করার জন্য কোনো প্রকার কোনো কোডিং জানার দরকার হবে না। আপনি খব সাধারন ভাবেই ড্রাগ এনড ড্রপ করে আপনারে ওয়েবসাইটকে প্রফেশনাল ভাবে সাজাতে পারবেন।

 

থিমঃ

 

এই সেক্টরের মাধ্যমে আপনি আপনার ওযেবসাইটের থিম আপডেট করতে পারবেন। থিম ব্যাকাপ রাখতে পারবেন। তাছাডা আপনার ওয়েবসাইটের কোনো কোডিং পরিবর্তন করার দরকার হলে আপনি এখান থেকে করতে পারবেন।

 

সেটিংসঃ

 

আপনি আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগের সকল সেটিংস এখানে পাবেন। এই সেটিংস সেকশন আবার বেশ কিছু সাব সেটিংস এ ভাগ করা হয়েছে। চলুন সেগুলো দেখে নেই।

 

ব্যাসিক সেটিংস

 

এখানে আপনার ওয়েবসাইটের সকল ব্যাসিক কিছু দেওয়া আছে। আপনি সেগুলো এখানে পাবেন এবং সেগুলো এখান থেকে কন্ট্রোল করতে পারবেন।

 

পোষ্ট কমেন্ট এন্ড শেয়ার সেটিংস

 

এখানে আপনি আপনার ওয়েবসাইটে যতগুলো পোস্ট, কমেন্ট আছে সেগুলো সংক্রান্ত সকল সেটিং পাবেন। আপনি এসকল কিছু এখান থেকে মেইনটেন্ট করতে পারবেন। তারপর আপনার সাইট শেয়ার করার য়ে বিষযগুলো রয়েছে সেগুলোও এখানে পাবেন।

 

ইমেইল সেটিংস

 

এখানে আপনি আপনার জন্য একটি কাস্টম ইমেইল বানাতে পারবেন এবং সেটা ব্যাবহার করতে পারবেন। তাছাডাও আপনি আপনার সাইটেন ইমেইল চেন্জ করার জন্য প্রয়োজনিয় সেটিং এখানেই পাবেন।

 

লেংগুয়েজ এন্ড ফরমেটিক সেটিংস

 

এখান থেকে আপনা ওয়েবসাইটের লেংগুয়েজ ঠিক করে দিতে পারবেন। আপনার টাইস জোন, সময়, তারিখ ইত্যাদি সকল কিছু এখান থেকে ঠিক করতে পারবেন।

 

সার্স প্রিফারেনসিস সেটিংস

 

এটা হচ্ছে আপনার সাইটের এসইও সেটিং। আপনি এখানে আপনার সাইটের এসইও করার জন্য প্রয়োজনিয় সকল কিছু পাবেন। সাইটম্যপ, রোবটস.টেক্স, ইনডেক্স, এনালাইসিস কোড ইত্যাদি সকল কিছুই আছে এই সেটিংস সেক্টরে।

 

আদারস সেটিংস

 

আপনার সাইটের ব্যাকাপ, আপলোড ইত্যাদি এইসকল বিষয় বস্তু এখানে পাবেন এবং সেগুলোকে এখান থেকে কন্ট্রোল করতে পারবেন।

 

ইউজার সেটিংস

 

এখানে আপনি আপনার প্রোফাইল সেট করতে পারবেন। আপনার ওয়েবসাইটের এডমিন প্যানেলের ভাষা এখান থেকে ঠিক করতে পারবেন।

 

আরো পডুনঃ

 

তো আমি আশা করি আপনি সম্পুর্ন বিষয়টা বুঝতে পেরেছেন। আরো কোনো সমস্যা থালে আমাকে অবস্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আমি সেটার উত্তর দেওয়ার সম্পুর্ন চেষ্টা করবো।

 

আজকে এই পর‌্যন্তই (ব্লগার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানুন) আলোচনা করলাম। আপনি আমার ওয়েবসাইটের আরো পোষ্টগুলো পডে দেখতে পারেন। আমি সবসময় এরকম ইনফরমেটিভ পোষ্ট করে থাকি। আজ এখানেই শেষ করবো। এই পোষ্টটি পডে আপনার সামান্যতম উপকার হলে আপনি এই পোষ্টটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। যার ফলে তারাও উপকৃত হতে পারবে আপনার মাধ্যমে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Share via
Copy link