ওয়ার্ডপ্রেসব্লগিং

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে কিভাবে ফ্রিতে ওয়েবসাইট বানানো যায়

অনেকে হয়তো জেনে থাকবেন ফ্রিলান্সার এর মতো মার্কেটপ্লেস থেকে একটি ওয়েবসাইট বানাতে গেলে আপনাকে সর্বনিম্ম ২৫০ ডলার খরচ করতে হয়। কিন্তু কেমন হয় সেই ওয়েবসাইট যদি আপনি নিজে নিজে বিনামূল্যে বানিয়ে নিতে পারেন?

হ্যা, আজকে আমি দেখাবো কিকরে ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ফ্রিতে ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন।আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ব্লগিং শুরু করতে চান তাহলে আগে আপনার জেনে নেওয়া উচিত যে ব্লগিং করার জনা কি কি দরকার

তো চলুন শুরু করি ।

ডোমেইন এবং হোস্টিং নেওয়া

ডোমেইন মানে হচ্ছে আপনার ওয়েবসাইটের একটি মৌলিক ঠিকানা। কেউ যদি আপনার ওয়েবসাইট খুজে বের করতে চায় তাহলে আপনার ডোমেইন নাম লিখে প্রবেশ করতে হবে।

আর হোস্টিং হলো কোনো নির্দিষ্ট ডোমেইনকে ইন্টারনেটের লাইভ করার জায়গা বা ভার্চুয়াল মেমুরীকার্ড বলতে পারেন।

অর্থাৎ , আপনি একটি ডোমেইন কিনবেন এবং সেই ডোমেইনটি যেনো ইন্টারনেটে সকলে খুজে পায় সেজন্য একটি হোস্টিং এ ডোমেইনটি রাখবেন ।তারপর সে ডোমেইনে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করলে ওয়েবসাইট বানিয়ে ফেলবেন।

ডোমেইন হোস্টিং কেনার ক্ষেত্রে ইন্টারনেশনাল সাইট থেকে কিনলে ভালো হয় । কিন্তু আপনার কাছে যদি ক্রেডিট কার্ড না থাকে তাহলে বাংলাদেশি অনেক হোস্টিং প্রোবাইডার আছে । তাদের কাছ থেকে নিতে পারেন।

তবে আপনি চাইলে ফ্রিতে এগুলো নিয়ে ও কাজ শুরু করতে পারেন প্র্যাক্টিস করার সুবিধার্থে । কিন্তু ফ্রি ডোমেইন দিয়ে ইনকাম করার আশায় কাজ করবেন না । এতে করে আপনার অনেক সময় ব্যয় হয়ে যাবে।

কিভাবে ফ্রিতে হোস্টিং নিবেন?

কিভাবে ফ্রিতে ডোমেইন নিবেন

ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করা

ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করতে গেলে প্রথমে আপনাকে আপনার ওয়েবসাইটের হোস্টিং এর সিপ্যানেলে যেতে হবে ।

সিপ্যানেলে গেলে সফটুকুলাস এপ ইন্সটলার এর নিচে ওয়ার্ডপ্রেস নামক একটি অপশন পাবেন । তো সেখান থেকে আপনাকে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করে নিতে হবে ।

১। সিপ্যানেলে এ যান এবং সেখান থেকে ওয়ার্ডপ্রেস সিলেক্ট করুন

২। ইন্সটলে ক্লিক করুন।

৩/ প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে ( ইজারনেম, পাসওয়ার্ড সহ) নিচে ইন্সটল বাটনে ক্লিক করুন

আপনার ওয়াবসাইট এর জন্য ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করা হয়ে গেছে। এখন ওয়ার্ডপ্রেসের মাধ্যমে আপনার সাইট আপনি কন্ট্রোল করতে পারবেন;যেমনঃ পোস্ট করা, ওয়েবসাইট নিজের ইচ্ছামতো সাজানো বা কাস্টোমাইজ করা , কমেন্ট এর রিপ্লাই দেওয়া ইত্যাদি, ইত্যাদি।

ওয়ার্ডপ্রেস দেশবোর্ডে লগিন করা

ওয়েবসাইটে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করার পর আপনাকে ওয়ার্ডপ্রেসের ডেশবোর্ডে লগিন করতে হবে। তো এর জন্য যেকোনো ব্রাউজারে গিয়ে আপনার ওয়েবসাইটের এড্রেসের পরে /Wp-admin লিখে সার্চ করতে হবে ।

এটি লিখে সাচ করলে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস লগিন পেইজে চলে যাবেন । তারপর , ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করার সময় যে পাসওয়ার্ড দিয়েছিনে , সেটি দিয়ে লগিন করতে হবে।

তারপর, লগিন বাটনে ক্লিক করলেই ওয়ার্ডপ্রেসের ডেশবোর্ডে প্রবেশ হয়ে যাবে।

ওয়েবসাইটের কাঠামো গঠন করা

আপনি এখন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করলে দেখবেন আপনার সাইটটি সুবিন্যাস্ত নয়।

তো আপনার সাইটকে বিন্যাস্ত করতে গেলে আপনাকে একটি কাঠামো প্রদান করতে হবে।

আর ওয়ার্ডপ্রেসের ভাষায় একে বলে Theme . তারমানে আপনাকে একটি থিম এক্টিবেট করতে হবে ।

  1. এর জন্য প্রথমে চলে যান appearance
  2. তারপর সেখান থেকে Theme এর উপর ক্লিক করুন।
  3. নতুন থিম ইন্সটল করার জন্য Add New তে করুন।
  4. যেকোনো একটি ফ্রি থিম বাছাই করুন
  5. থিমটি ইন্সটল করুন
  6. ইন্সটল হয়ে গেলে একটিবেট করুন ।

ওয়ার্ডপ্রেসে অনেক ফ্রী থীম রয়েছে আবার অনেক মার্কেটপ্লেস থেকে প্রিমিয়াম থিম কিনতে পাওয়া যায়। যেহেতো আপনারা নতুন সেহেতু আমার সাজেশন হলো ফ্রি থিম দিয়ে প্র্যাক্টিস করুন ।

ভালো রেস্পনসিব ফ্রি থিমের মধ্যে রয়েছে Astra, Sydney, Airi

এসব থীমগুলো থেকে যেকোনো একটি এক্টিবেট করে আপনার ওয়েবসাইটের কাঠামো গঠন করে ফেলুন।

ওয়ার্ডপ্রেসের থিম কাস্টমাইজেশন করা

আপনি যেই ডিফল্ট থিমটি সিলেক্ট করবেন আপনার ওয়েবসাইটের জন্য যেখানে অনেক অপশন থাকতে পারে যা আপনার প্রয়োজন না।

মনে করেন সেখানে যেই মেনু থাকবে সেটা আপনার টপিক এর সাথে মিলে না। অর্থাৎ আপনি নিউজ রিলেটেড সাইট বানাবেন , কিন্তু সেখানে বিজনেস টপিকের মেনু দেওয়া আছে।

তো, আপনাকে তো অবশ্যই মেনু টি পরিবর্তন করতে হবে। তো এটি কিভাবে করবেন?

এতি করতে হলে আপনাকে ওয়ার্ডপ্রেস থিম কাস্টমাইজেশন সম্পর্কে জানতে হবে

আমি এখানে কিছু কাস্টমাইজেশন সম্পর্কে বলছি। মনযোগ দিয়ে পড়ুন

মেনু কাস্টমাইজেশন করা

মেনু কাস্টমাইজেসনের জন্য প্রথমে appearance থেকে menu তে যেতে হবে । তারপর সেখান থেকে আপনি আপনার ইচ্ছামতো কাস্টমাইজেশন করতে পারবেন।

ডিফল্ট ভাবে যেটি সেট করা আছে সেটা থেকে আপনি যেটা অপ্রয়োজনীয় বলে মনে করেন সেটি রিমোব করে দেন এবং যেকোনো ক্যাটাগরী অথবা পেইজকে মেনু হিসেবে সিলেক্ট করুন ।

আপনি চাইলে আপনার মেনু কোথায় প্রদর্শন করতে চান তা ও সিলেক্ট করতে পারেন।

widget কাস্টমাইজেশন

widget হলো কোনো পেইজে যেকোনো কিছু একটা প্রদশর্ন করা যেমনঃ পপুলার পোস্ট, রিসেন্ট পোস্ট ইত্যাদি।

appearance থেকে widget এ গিয়ে আপনার ইচ্ছা মতো আপনি আপনার যেকোনো ওয়েবপেইজে অতিরিক্ত কি দেখাতে চান তা সেট করতে পারেন। এতি ও প্রায় মেনু সেট আপ করার মতোই।

আশা করি আপ্নারা কাজ করতে যাইলেই সব বুঝে যাবেন । আর যদি কোনো সমস্যা হয় তাহলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করবেন।

আমি সবার প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্ঠা করবো।

ওয়েব পেইজ কাস্টমাইজেশন করা

আপনি আপনার ইচ্ছা মতো আপনার ওয়েবসাইটের যেকোনো পেইজ সাজাতে পারেন। একেই ওয়েবপেইজ কাস্টমাইজেশন বলে ।

পেইজ কাস্টমাইজেশন এর জন্য আপনাকে একটি পেইজ বিল্ডার সেট করতে হবে। সবচেয়ে জনপ্রিয় পেইজ বিল্ডার হচ্ছে Elementor

আর এটি সেট করতে পারেন প্লাগিন থেকে।

  1. প্রথমে plugin এ যান
  2. তারপর Add New তে ক্লিক করুন
  3. সার্চ বাক্সে Elementor লিখে সার্চ করুন
  4. প্লাগিনটি ইন্সটল করুন
  5. ইন্সটল হয়ে গেলে এক্টিবেট করুন
  6. এইবার যে পেইজ কাস্টমাইজেশন করতে চাচ্ছেন সে পেইজ এর Edit এ ক্লিক করুন
  7. তারপর Edit with Elementor এ ক্লিক করে পেইজ বিল্ডার দিয়ে কাস্টমাইজেশন করা শুরু করে দিন।

আপনার সাইট এখন আর্টিকাল পাবলিশ করার জন্য মোটামোটি রেডি।

এখন আপনার কাজ হচ্ছে নিয়মিত আর্টিকাল পাব্লিশ করা।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে পোস্ট পাব্লিশ করা

এর জন্য প্রথমে আপনাকে Post থেকে Add New তে চলে যেতে হবে। সেখানে প্রয়োজনীয় হেডিং দিয়ে একটি পোস্ট লিখুন । কোয়ালিতি পোস্ট লিখার জন্য সাহায্যকারী টুলস হিসেবে yoast SEO প্লাগিন তি এক্টিবেট করে নিন

আর্টিকাল লেখা হয়ে গেলে পাবলিশ বাটনে ক্লিক করে দিন। আপনি চাইলে সিডিউল করে দিতে পারেন। অর্থাৎ একটি টাইম সেট করে দিতে পারেন যেন ঐ সময় হলে আর্টিকাল অটোমেটিক পাব্লিশ হয়ে যায়।

উপসংহার

উপরের পোস্টটি পরে আপনি একটি প্রোফেশনাল ওয়েবসাইট বানিয়ে ফেললেন। এখন আপনার কাজ হচ্ছে , এই ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম এর রাস্তা ঠিক করা ।

আপনারা যদি জানতে চান কিভাবে ওয়েবসাইট থেকে সহজে ইনকাম করা যায়। তাহলে নিচে কমেন্ট এ জানাতে ভুলবেন না ।

আর আমাদের প্রকাশিত পোস্ট যদি নিয়মিত সবার আগে পেতে চান । তাহলে অবশ্যই সাইটি সাবস্ক্রাইভ করে রাখবেন।

Facebook Group:

Facebook Page:

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close